এই মাত্র খেলাধুলা প্রিয় লেখক ব্রেকিং মু: মাহবুবুর রহমান

পরাজয় দিয়ে শুরু হলো পাকিস্তানের নিউজিল্যান্ড সফর

মু: মাহবুবুর রহমান, নিউজিল্যান্ড থেকে

 হারের মধ্য দিয়ে নিউজিল্যান্ড সফর শুরু করলো পাকিস্তান। অকল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচেই  নিউজিল্যান্ডের কাছে ৫ উইকেটে হেরে গেছে পাকিস্তান।

এই সিরিজ শুরুর আগে থেকেই বিভিন্ন কারণে আলোচনায় ছিল পাকিস্তানের নিউজিল্যান্ড সফর। পাকিস্তানী খেলোয়াড়দের কোভিড প্রোটোকল ভাঙা, পাকিস্তান তারকাদের একের পর এক করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর, সিরিজের আগে দলে ডাক না পেয়ে মোহাম্মদ আমিরের আচমকা অবসর-সবকিছু মিলিয়ে শুরুর আগে আলোচনায় ছিল এই সিরিজটা। এছাড়া দুই নিয়মিত অধিনায়কই নেই এই সিরিজে। বুড়ো আঙুলের ইনজুরির কারণে খেলতে পারছেন না পাকিস্তানের বাবর আজম আর প্রথম সন্তান ভূমিষ্টের কারণে স্ত্রী- সন্তানের পাশে থাকতে ছুটি নিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন।

ঐসব খবর পেছনে ফেলে শেষ পর্যন্ত অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি খেলতে ১৮ই ডিসেম্বর মাঠে নামে পাকিস্তান। কিন্তু শুরুটা ভালো হয়নি পাকিস্তানের, পাঁচ উইকেটে হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা।

অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। কিন্তু ব্যাট হাতে নামা পাকিস্তানকে শুরুতেই চেপে ধরে নিউজিল্যান্ডের বোলাররা। প্রথম ৫০ বলে ৩৯ রানে পাকিস্তানের পাঁচ ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফেরেন।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা ডান-হাতি পেসার জ্যাকব ডাফির সামনে অসহায় হয়ে পড়ে পাকিস্তানের টপ-অর্ডার। দুই ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান ১৭ ও আবদুল্লাহ শফিক খালি হাতে ডাফির শিকার হন। চার নম্বরে নামা অভিজ্ঞ মোহাম্মদ হাফিজকেও রানের খাতা খুলতে দেননি ডাফি। প্রথম পাঁচ উইকেটের অন্য দু’টি নিয়েছেন ডান-হাতি পেসার স্কট কুগিলিজেন ও স্পিনার ইশ সোধি। নবম ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে পাকিস্তান।

ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় পাকিস্তানের সংগ্রহটা ১০০ রান পেরোবে কি না, সেটি নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছিল। কিন্তু শুরুর ধাক্কা সামাল দিয়ে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক শাদাব খান দু’টি গুরুত্বপূর্ণ জুটি গড়েন। ষষ্ঠ উইকেটে ইমাদ ওয়াসিমকে নিয়ে ৩২ বলে ৪০ ও সপ্তম উইকেটে ফাহিম আশরাফকে নিয়ে ২৩ বলে ৩৫ রান যোগ করেন শাদাব। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে নয় উইকেটে ১৫৩ রান করতে সক্ষম হয় পাকিস্তান।

১৫৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে স্বস্তিতে ছিল না নিউজিল্যান্ডও। চার ওভারের মধ্যে ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও ডেভন কনওয়ের উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফেরার আভাস দেয় পাকিস্তান।

তবে, উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান টিম সেইফির্টের কাউন্টার অ্যাটাকে টিকে থাকে স্বাগতিক দল। তার ৪৩ বলের ৫৭ রানের ঝড়ো ইনিংস দলকে জয়ের পথে রাখে। এটি ছিল তার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফ সেঞ্চুরি।

সেইফির্টকে যোগ্য সহায়তা দেন মার্ক চ্যাপম্যান ও গ্লেন ফিলিপস। চ্যাপম্যান করেন ৩৪ আর ফিলিপসের ব্যাট থেকে আসে ২৩ রান। এই দুইজনের বিদায়ের পর দলের জয় নিশ্চিত করেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মিচেল স্যান্টনার ও জেমস নিশ্যাম। ১৮ ও ১৯তম ওভারে ২১ রান নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন এই দুইজন। স্যান্টনার ১২ ও নিশ্যাম ১৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

অভিষেক টি-টোয়েন্টিতে ৩৩ রানে চার উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন নিউজিল্যান্ডের জ্যাকব ডাফি। টি-২০ সিরিজের বাকি দুইটি ম্যাচ হবে ২০ ডিসেম্বর হ্যামিল্টনে ও ২২ ডিসেম্বর নেপিয়ারে।

Related posts

আমিরাতে বাংলাদেশি মা-মেয়েকে চাপা দিয়ে হত্যার ১৪ মিনিটেই চালক গ্রেফতার

razzak

মঙ্গলের আকাশে সফল ভাবে উড়লো হেলিকপ্টার

Irani Biswash

মেট্রোরেলের ভাড়া নির্ধারণ, সর্বনিম্ন ২০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ১০০ টাকা

Mims 24 : Powered by information

Leave a Comment

Translate »