সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২
MIMS 24
এই মাত্র কোভিড ১৯ প্রিয় লেখক ব্রেকিং মু: মাহবুবুর রহমান স্বাস্থ্য

‘কোভিশিল্ড’ ও ‘কোভ্যাক্সিন’ এর চূড়ান্ত অনুমোদন দিলো ভারত

মু: মাহবুবুর রহমান 

করোনাভাইরাসের দুটি টিকা – কোভিশিল্ড ও কোভ্যাক্সিন ব্যবহারের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে ভারত। আগেই ছাড়পত্র দেয়ার সুপারিশ করেছিল সরকারি বিশেষজ্ঞ কমিটি আর এবার তাতে চূড়ান্ত অনুমোদন দিলো ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই)।

এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারত সরকার নিয়োজিত বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সুপারিশের প্রেক্ষিতে দেশটির ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (ডিসিজিআই) আজ (৩ রা জানুয়ারী ২০২১) অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ‘কোভিশিল্ড’ ও ভারত বায়োটেকের ‘কোভ্যাক্সিন’ এর জরুরি অনুমোদন দেয়।

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনা টিকা ‘কোভিশিল্ড’ (Covishield) নামে ভারতে উৎপাদন করছে সিরাম ইনস্টিটিউট। আর কোভ্যাক্সিন’ (Covaxin) তৈরি করেছে ভারতের চিকিৎসা বিজ্ঞান গবেষণা সংস্থা আইসিএমআরের সাথে যৌথ উদ্যোগে ভারত বায়োটেক। অর্থাৎ কোভ্যাক্সিন ভারতের নিজস্ব উদ্ভাবিত করোনা টিকা।

ডিসিজিআই প্রধান ভিজি সোমানি সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘ভারত বায়োটেক ও সিরাম ইনস্টিটিউট উভয় প্রতিষ্ঠান তাদের করোনা টিকার ট্রায়ালের তথ্য জমা দেয়। সেই তথ্য পর্যালোচনা করে টিকা দুটির জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।‘ তিনি আরো বলেন, ‘নিরাপত্তা নিয়ে সামান্যতম উদ্বেগ থাকলেও আমরা কখনো তার অনুমোদন দেই না। অনুমোদন পাওয়া টিকাগুলো শতভাগ নিরাপদ।’

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনার টিকা ভারতে জরুরি ব্যবহারের চূড়ান্ত অনুমোদন বাংলাদেশের জন্য সুখবর। কারণ ইতোমধ্যে বাংলাদেশ ও ভারতের বাজারে একই সময়ে টিকা সরবরাহের ব্যাপারে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি করেছে বাংলাদেশ।

গত ৫ নভেম্বর ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত করোনার টিকা নিয়ে বাংলাদেশ সরকার, সিরাম ইনস্টিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। পরে গত ১৩ ডিসেম্বর ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের সঙ্গে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ক্রয়চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়।

ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট থেকে ৩ কোটি করোনার টিকা আনবে বাংলাদেশ। এই টিকা সরবরাহ করবে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা সাধারণ রেফ্রিজারেটরে সংরক্ষণ করা যায়, যে সংরক্ষণ সুবিধা বাংলাদেশের আছে। আর এই টিকার দুটি করে ডোজ নিতে হয়। দুই ডোজের মধ্যে ব্যবধান চার সপ্তাহ।

 

Related posts

ভারতে এবার রেললাইন অবরোধ কৃষকদের

Mims 24 : Powered by information

রাশিয়াকে যে প্রস্তাব দিলেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

razzak

পার্লামেন্টে নারী মন্ত্রীর পাশে বসে আপত্তিকর ভিডিও দেখার অভিযোগ ব্রিটিশ এমপির বিরুদ্ধে

razzak

Leave a Comment

Translate »