ডিসেম্বর ৮, ২০২২
MIMS 24
অর্থনীতি এই মাত্র ক্রয় বিক্রয় ব্রেকিং স্বাস্থ্য

বহুজাতিক কোম্পানি সানোফির শেয়ার কিনে নিচ্ছে বেক্সিমকো ফার্মা

বহুজাতিক ওষুধ কোম্পানি সানোফি বাংলাদেশ লিমিটেডের ৫৪ দশমিক ৬ শতাংশ শেয়ার কিনে নিতে চুক্তি করেছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ঔষধ প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক কোম্পানি বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড।

বহুজাতিক ওষুধ কোম্পানি সানোফি বাংলাদেশের বাকি ৪৫ দশমিক ৪ শতাংশ শেয়ারের মধ্যে ২৫ দশমিক ৩৬ শতাংশ আছে বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয় এবং ১৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশনের হাতে।

বহুজাতিক ওষুধ কোম্পানি সানোফি বাংলাদেশের এই শেয়ার অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ৩৫ দশমিক ৫ মিলিয়ন পাউন্ড। বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেইন এক্সচেঞ্জ ইনভেস্টমেন্ট বিভাগের ছাড়পত্র এবং ক্রয়-বিক্রয়ের অর্থ লেনদেনের অনুমতি পেলেই সানোফির সঙ্গে চূড়ান্ত ক্রয় চুক্তি করবে বেক্সিমকো, সেজন্য সেজন্য ৩ থেকে ৯ মাস সময় লাগতে পারে।

যে কটি বহুজাতিক কোম্পানি বাংলাদেশে কারখানা করে ওষুধ উৎপাদন এবং বাজারজাত করে আসছিল, তাদের মধ্যে সানোফি বাংলাদেশ লিমিটেড একটি। ২০১৯ সালে বিশ্ববাজারে ৩৬ বিলিয়ন ডলারের বেশি পণ্য বিক্রি করা ফরাসি কোম্পানি সানোফি বাংলাদেশে ব্যবসা করে আসছে ছয় দশকের বেশি সময় ধরে।

কিন্তু হঠাৎ করেই তারা ব্যবসা গুটিয়ে বাংলাদেশ ছেড়ে যাওয়ার পরিকল্পনার কথা জানায়। ২০১৯ সালের অক্টোবরে সানোফির এক বিবৃতিতে বলা হয়, “আমরা মনে করি, বাংলাদেশে ব্যবসার সম্ভাবনা পুরোপুরিভাবে কাজে লাগানোর মত অবস্থানে সানোফি নেই। এ অবস্থার পরিবর্তনে সানোফি বাংলাদেশ লিমিটেডে থাকা আমাদের শেয়ার হস্তান্তরের জন্য অংশীদার খুঁজছি আমরা।” তাদের সেই ঘোষণার ১৫ মাস পর সানোফির হাতে থাকা ৫৪ দশমিক ৬ শতাংশ শেয়ার বেক্সিমকোর কাছে বিক্রির জন্য চুক্তি করল।

গত ২১ জানুয়ারী ২০২১ ভার্চুয়াল এক অনুষ্ঠানে বেক্সিমকো ফার্মার পক্ষে চুক্তিতে সই করেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান। সানোফি বাংলাদেশের একজন প্রতিনিধি এবং ফ্রান্স থেকে সানোফি গ্রুপের শীর্ষ কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

১৯৫৮ সালে ‘মে অ্যান্ড বেকার’ নামে বাংলাদেশে ব্যবসা শুরু করে বহুজাতিক কোম্পানি সানোফি। পরে ২০০৪ সালে সানোফি-অ্যাভেন্টিস গ্রুপ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে একীভূত হয়। ২০১৩ সালে কোম্পানিটির নাম বদলে সানোফি বাংলাদেশ লিমিটেড রাখা হয়। টঙ্গীতে এ কোম্পানির একটি ওষুধ তৈরির কারখানা রয়েছে।

এছাড়া আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের বিভিন্ন ভ্যাকসিন, ইনসুলিন ও কেমোথেরাপির নানা ওষুধ সানোফি বাংলাদেশে আমদানি করে। হৃদরোগ, ডায়াবেটিকস, টিউমার চিকিৎসা, চর্মরোগ এবং সিএনএসে সানোফির ওষুধ বহুলভাবে ব্যবহৃত হয়। চুক্তির আওতায় টঙ্গীতে সানোফির কারখানার কাছে ২৫ একর জায়গাজুড়ে একটি সেফালোস্পিরিন এন্টিবায়োটিক তৈরির কারখানাসহ অন্যান্য ওষুধ তৈরির কারখানার মালিকানাও বেক্সিমকো পাবে।

দেশের শীর্ষস্থানীয় ঔষধ প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক কোম্পানি বেক্সিমকো ফার্মা বর্তমানে বিশ্বের ৫০টির বেশি দেশে ওষুধ রপ্তানি করছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত বেক্সিমকো ফার্মা লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জের অল্টারনেটিভ ইনভেস্টমেন্ট মার্কেটেও নিবন্ধিত।

Related posts

খাশোগি হত্যার অনুমতি দেন সৌদি যুবরাজ : মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা

Mims 24 : Powered by information

সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ বেড়েছে ৬ জুন পর্যন্ত

Irani Biswash

শিক্ষার্থীদের অনশনে পুলিশের বাধা

razzak

Leave a Comment

Translate »