ডিসেম্বর ৩, ২০২২
MIMS 24
এই মাত্র ব্রেকিং স্বাস্থ্য

কানের সমস্যা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা জারি

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) মঙ্গলবার (২ মার্চ) সতর্কতা জারি করেছে যে, ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার চার জনের মধ্যে একজন কানে শুনতে পারবেন না। কানের সমস্যা নিয়ে লড়াই করতে হবে তাঁকে। শ্রবণ ক্ষমতা হ্রাস পেতে পারে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ডব্লিউএইচও কানের চিকিৎসায় বিনিয়োগের জন্য আহ্বান জানিয়েছে। গোটা বিশ্বজুড়ে যেভাবে কানের সমস্যা বাড়ছে, তাতে এখনই সাবধান না হলে আগামী দিনে সমস্যার মুখে পড়তে হবে।

কানের সমস্যা কী কী কারণে হতে পারে, তা নিয়ে ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, সংক্রমণ, কোনও রোগের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া, জন্মগত সমস্যা থেকে শুরু করে ক্রমবর্ধমান শব্দ এবং জীবনযাত্রার কারণে কানের সমস্যা বাড়তে থাকবে। শ্রবণ সমস্যাগুলি পরিমাপের জন্য এবং তা নির্মূল করার জন্য প্যাকেজ প্রস্তাব করেছে ডব্লিউএইচও। যার অধীনে একজন ব্যক্তির জন্য প্রতি বছর নির্দিষ্ট পরিমাণের একটি খরচ হতে পারে। এখনই হাল না ধরলে সমস্যা গুরুতর।

‘সমস্যা মোকাবিলায় পদক্ষেপ করতে ব্যর্থ হলে, পরিণতি আরও ভয়ঙ্কর হবে। মানুষের স্বাস্থ্য ও সুখের উপরও প্রভাব ফেলবে। এ ছাড়াও তাদের পড়াশোনা, চাকরি এবং যোগাযোগ থেকে বিচ্ছিন্ন হতে হবে। যার ফলে আর্থিক ক্ষতি পর্যন্ত হতে পারে। বড় সংকট আসছে সামনে।’ ডব্লিউএইচওর পক্ষ থেকে যে রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে এসকল কথা বলা হয়েছে।

এই মুহূর্তে বিশ্বজুড়ে পাঁচ জনের মধ্যে একজন শ্রবণ সমস্যার মুখোমুখি। তবে রিপোর্ট বলা হয়েছে পরবর্তী তিন দশকে শ্রবণশক্তি হ্রাসের সমস্যায় কাটানোর লোকজনের সংখ্যা দেড় গুণ বেড়ে গিয়েছে। এর প্রভাব আড়াই বিলিয়ন লোকের ওপর পড়তে পারে। ২০১৯ সালে এই জাতীয় ব্যক্তির সংখ্যা ১.৬ বিলিয়ন ছিল। ২০৫০ সালে ২.৫ বিলিয়ন এর মধ্যে, ৭০ কোটি লোক এই রোগে মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হবে এবং তাদের চিকিৎসার প্রয়োজন হবে।

সূত্র: জি নিউজ

Related posts

নায়িকার পোশাক ২৫ কেজি!

razzak

আজ পহেলা বৈশাখ, বাঙালির অসাম্প্রদায়িক উৎসবের দিন

razzak

মিয়ানমারে বিক্ষোভকালে মাথায় গুলি লেগে আহত তরুণী মারা গেছে

Mims 24 : Powered by information

Leave a Comment

Translate »