ডিসেম্বর ২, ২০২২
MIMS 24
জাতীয় জীবনধারা বাংলাদেশ বিনোদন ব্রেকিং সাহিত্য

ইউনিস্কোর স্বীকৃতির অপেক্ষায় শখের হাঁড়ি

নিজস্ব সংবাদদাতা: গ্রামীন পটভূমির ঐতিহ্যবাহী নকশাঁকরা শখের হাঁড়ি ছিল খুবই জনপ্রিয়। কালের বিবর্তনে প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছে। বর্তমানে ঘর সাজাতে জমকালো জিনিসপত্রের চাহিদা বেড়েছে। তবে  একসময় গ্রাম বাংলার গৃহিণীদের ঘর সাজানোর অন্যতম সম্বল ছিল শখের হাঁড়ি। নানা রঙে–নকশায় তৈরি মাটির সেই হাঁড়ির প্রচলন বলতে গেলে উঠেই গেছে। শখের এই হাঁড়িকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিতে গত মার্চে জাতিসংঘ শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থার (ইউনেসকো) কাছে আবেদন করেছে বাংলা একাডেমি।

শুধু এ হাঁড়ি নয়, আরও দুটি ঐতিহ্যকে স্বীকৃতি দিতে বাংলাদেশ থেকে আবেদন করা হয়েছে। এর একটি দেশের দক্ষিণ–পশ্চিমাঞ্চলের বিখ্যাত খেজুরের রস, অন্যটি বাংলা সাহিত্যের সম্পদ চর্যাগীতি।

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী বলেন, ‘ওই তিনটি উপাদান ছাড়াও আমরা ‘রিকশাচিত্র’কে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য ইউনেসকোর কাছে আবেদন করেছিলাম। কিন্তু কিছু প্রক্রিয়াগত সমস্যার কারণে তা হয়নি। আমরা আবারও ভালোমতো প্রস্তুতি নিয়ে রিকশাচিত্রকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য আবেদন করব।’

খেজুর রসকে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা দেওয়ার পক্ষে যুক্তি হিসেবে বাংলা একাডেমি থেকে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে খেজুর ফল হিসেবে খুব বেশি আহরণ করা হয় না। মূলত খেজুরগাছ থেকে রস আহরণ করা হয়। এর জন্য একটি আলাদা সম্প্রদায় আছে। রস জ্বাল দেওয়া, বিশেষ ধরনের মাটির পাত্রে তা সংরক্ষণ, এটি দিয়ে তৈরি পিঠাসহ সব মিলিয়ে এটি বাংলাদেশে একটি সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের জন্ম দিয়েছে।

Related posts

সেই বিচারককে প্রত্যাহার, প্রজ্ঞাপন জারি

razzak

করোনার উৎপত্তি চীনের একটি গবেষণাগার থেকে: ট্রাম্প

Irani Biswash

ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশের অর্থনীতি: বিশ্বব্যাংক

razzak

Leave a Comment

Translate »