অপরাধ আইন ও বিচার আন্তর্জাতিক জীবনধারা ধর্ম ও জীবন ব্রেকিং যুক্তরাষ্ট্র রাজনীতি

যুক্তরাষ্ট্র সফরে সৌদি আরবের উপ-প্রতিরক্ষা মন্ত্রী

আন্তর্জাতিক সংবাদ :    খাশোগি হত্যা ও অন্যান্য ইস্যুতে আলোচনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন সৌদি আরবের উপ-প্রতিরক্ষা মন্ত্রী খালিদ বিন সালমান। খালিদ বিন সালমান সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ভাই। সৌদি আরবের প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার বিষয়ে মার্কিন গোয়েন্দা রিপোর্টে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের (এমবিএস) সংশ্লিষ্টতা থাকার রিপোর্ট প্রকাশ হওয়ার এক মাস পরেই খালিদ বিন সালমান যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন।
সৌদি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সৌদি আরবের উপ-প্রতিরক্ষা মন্ত্রী খালিদ বিন সালমান যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন বাইডেন প্রশাসনের প্রধান কর্মকর্তাদের সাথে সাক্ষাৎ করার জন্য।
মঙ্গলবার আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার মার্কিন প্রেসিডেন্টের দফতর হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে জেন সাকি বলেন, খালিদ বিন সালমান বাইডেনের জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টো জ্যাকি সুলেভানের সাথে আলোচনা করতে চাইছেন।

জেন সাকি এ বিষয়ে আরো বলেন, সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যেকার দীর্ঘ দিনের অংশীদারিত্ব নিয়ে আলোচনা করবেন খালিদ বিন সালমান ও জ্যাকি সুলেভান। এ আলোচনার সময় তারা আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও সৌদি ভূখণ্ড রক্ষায় মার্কিন প্রতিশ্রুতি নিয়ে কথা বলবেন। তাদের আলোচনায় সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার বিষয়টিও থাকবে।

সৌদি আরবের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদের এ সফরের বিষয়ে আগে থেকে কোনো কিছু জানানো হয়নি।

এদিকে মার্কিন জনপ্রতিনিধি ও মানবাধিকার সংগঠনগুলো ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট জামাল খাশোগি হত্যায় যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সংশ্লিষ্টতা থাকায় তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য বাইডেনকে আহ্বান জানিয়েছেন। তারা সৌদি-মার্কিন সম্পর্ক পুনর্বিবেচনা করারও আহ্বান জানান।

সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটে হত্যা করা হয় মোহাম্মদ বিন সালমানের আদেশে। ২০১৮ সালে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের (এমবিএস) সংশ্লিষ্টতার কথা মার্কিন গোয়েন্দা রিপোর্টে পাওয়া গেলে সৌদি-মার্কিন সম্পর্কের অবনতি হয়।

মানবাধিকারকে মার্কিন পররাষ্ট্র নীতির অন্যতম প্রধান বিষয় হিসেবে রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছেন, তিনি সৌদি-মার্কিন সম্পর্ক পুনরুদ্ধার করবেন। তবে তিনি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সাথে কোনো যোগাযোগ রাখবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। তার ঘোষণা হচ্ছে, সকল বিষয়ে তিনি সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করবেন।

এদিকে এক মার্কিন কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এপি-কে বলেন, সৌদি আরবের উপ-প্রতিরক্ষা মন্ত্রী খালিদ বিন সালমান যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিনের সাথে ও জয়েন্ট চিফ অব স্টাফের চেয়ারম্যান বা মার্কিন সেনাবাহিনীর সর্বাধিনায়ক মার্ক মিলির সাথে দেখা করবেন। এছাড়া মার্কিন প্রতিরক্ষা নীতিবিষয়ক সচিব কলিন খালের সাথে আলোচনা করবেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরেরর মুখপাত্র নেড প্রাইস জানিয়েছে, বুধবার খালিদ বিন সালমান মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরে এক আলোচনা অনুষ্ঠানে থাকবেন।

সূত্র : আল-জাজিরা

Related posts

৫০ বছর পর অন্ধ হয়ে যান যে গ্রামের পুরুষরা!

razzak

মেক্সিকোর কৃষিকাজে মল-মূত্র!

razzak

বন্যায় সুদানে ৮৪ জনের মৃত্যু

razzak

Leave a Comment

Translate »