জাতীয় জীবনধারা বাংলাদেশ ব্রেকিং শিক্ষা

নভেম্বর-ডিসেম্বরে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব সংবাদদাতা:   এ বছর অনুষ্ঠিত হবে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা। পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তিনি জানান, এসএসসি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ এবং এইচএসসি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি এসব তথ্য জানান।

তবে এরপরও যদি কোনো কারণে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত না হয়, তাহলে বিকল্প ব্যবস্থাও রাখা হচ্ছে। শিক্ষামন্ত্রী জানান, পরীক্ষা যদি কোনো কারণে অনুষ্ঠিত না হয়, তাহলে এসএসসি ও এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে।

তিনি জানান, আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হবে অ্যাসাইনমেন্টের মূল্যায়ন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা সব বিষয়ের পরীক্ষা নিতে চাই না। সিলেক্টিভ পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া হবে। এক্ষেত্রে তিনটি বিষয়ের ওপর পরীক্ষা হবে। এজন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাসও প্রণয়ন করা হবে। সে অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট করতে হবে। বাকি আবশ্যিক বিষয়গুলোর মূল্যায়ন হবে এসএসসি এবং জেএসসি পরীক্ষার বিষয় ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে।

তিনি আরও বলেন, আর যদি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হয় তাহলে অ্যাসাইনমেন্ট ও বিষয় ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হবে। অথবা শুধু বিষয় ম্যাপিংয়ের মাধ্যমেও মূল্যায়ন হতে পারে। সেটি পরে জানানো হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব আমিনুল ইসলাম, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সৈয়দ গোলাম ফারুক, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান নেহাল আহমেদসহ অন্যান্য বোর্ডের চেয়ারম্যানরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ৩০ জুন জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, বিশ্বের বহু দেশ এমন কি উন্নত বিশ্বের দেশগুলোও পাবলিক পরীক্ষা বাতিল করেছে। কোনো কোনো প্রেডিকটেড গ্রেড দিচ্ছে। আমরা সেখানে ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে ফেলেছিলাম। এইচএসএস পরীক্ষা শুরুর দিক দুই/তিনদিন আগে বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছিলাম। পরে আমরা জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল দিয়েছিলাম। আমরা যেভাবে বিচার বিশ্লেষণ ও টালি করে ফলাফল দিয়েছি দুই একটি ব্যক্তিক্রম ছাড়া পরীক্ষা হলে শিক্ষার্থীদের ফলাফল এরকমই হতো। কাজেই কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি।

Related posts

ঢাবিতে নতুন ডিন ও রেজিস্ট্রার নিয়োগ

Irani Biswash

যুক্তরাষ্ট্রে করোনার মাঝেও বাড়ছে অভিবাসীর সংখ্যা

razzak

ডিএসপি কন্যাকে ইন্সপেক্টর বাবার স্যালুট- মুহূর্তেই ছবি ভাইরাল

Mims 24 : Powered by information

Leave a Comment

Translate »