সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২
MIMS 24
খেলাধুলা

৮ মাসের শিশুর জন্য অলিম্পিক পদক বিক্রি করলেন পোলিশ অ্যাথলেট

নিজের অলিম্পিক পদক বিক্রি করে পোল্যান্ডের মাত্র আট মাসের এক শিশু মিলোসজেক। যাকে তিনি চিনতেনও না। তার চিকিৎসার জন্য অর্থ সংগ্রহ করতে নিজের কষ্টের অর্জন অলিম্পিকের পদকটি নিলামে তুলে দিলেন। এমন নজিরই স্থাপন করেছেন পোলিশ অ্যাথলেট মারিয়া আন্দ্রেজিক।

এবারের টোকিও অলিম্পিকে জ্যাভেলিন থ্রোয়ে রুপা জিতেছেন আন্দ্রেজিক। অলিম্পিকের পদক স্যুভেনির হিসেবে বাড়িতে সাজিয়ে রাখলে তিনি এই তৃপ্তি পেতেন না যা পেয়েছেন এই কাজে ‘এই অলিম্পিক পদক তো একটা বস্তু ছাড়া আর কিছুই নয়। কিন্তু এটির ওপর ধুলা না জমিয়ে তা যদি মানবতার কল্যাণে কাজে লাগে, সেটি যদি কাউকে নতুন জীবন দেয়, সেটিই বরং ভালো। আমিও তৃপ্তি পাই, স্বস্তি পাই’।

আন্দ্রেজিকের এ জীবনবোধ তার নিজের জীবন থেকেই পাওয়া। ২০১৬ রিও অলিম্পিকে মাত্র ২ সেন্টিমিটারের জন্য জ্যাভেলিন থ্রোয়ে পদক জিততে পারেননি।

২০১৮ সালে হাড়ের ক্যানসারে আক্রান্ত হন। জীবনটাই হয়েছিল বিপন্ন। সেই ক্যানসার জয় করে তিনি আবারও ট্র্যাকে ফিরেছেন। জয় করেছেন অলিম্পিকের পদকও।

জীবনটা যে একটা অলিম্পিকের পদকের চেয়ে অনেক বড়, অলিম্পিকের একটা গৌরব অর্জনেরও অনেক ওপরের জিনিস, আন্দ্রেজিক সেটি খুব ভালো করে জানেন বলেই তিনি আট মাসের শিশুর জন্য নিজের সাধের পদকটি বিক্রি করে দিতে এতটুকু দ্বিধায় ভোগেননি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আন্দ্রেজিক জেনেছেন হৃদ্রোগে ভুগছেন মিলোসজেক। বড় ধরনের অস্ত্রোপচার প্রয়োজন, সেটি হলেই হয়তো স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবে সে। শিশুটির এ খবর দেখেই আর থাকতে পারেননি তিনি। নিজের ‘অলিম্পিক-অর্জন’ বিক্রি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। নিলামে আন্দ্রেজিকের রুপার পদকটি শেষ অবধি বিক্রি হয়েছে ২ লাখ ৫০ হাজার ডলারে।

নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আন্দ্রেজিক লেখেন, ‘মিলোসজেকের হৃদ্রোগের সমস্যাটা খুবই গুরুতর। ওর দ্রুতই অস্ত্রোপচার হওয়া দরকার। আমি ওর সুচিকিৎসার জন্যই আমার অলিম্পিক পদকটি নিলামে বিক্রি করে দিচ্ছি। আশা করি, মিলোসজেকের জন্য একটা দারুণ সুন্দর ভবিষ্যৎ অপেক্ষা করে আছে’।

Related posts

জকোভিচের জন্য প্রতিবাদ মিছিল, পাশে দাঁড়ালো ফ্রান্স

razzak

ওমরাহ পালনে সৌদি যাচ্ছেন বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দলের ৫ ক্রিকেটার

razzak

বিবিসি’র আর্থিক প্রণোদনা পাবে ঘরোয়া ক্রিকেট

Irani Biswash

Leave a Comment

Translate »