আন্তর্জাতিক এই মাত্র

জেনে নিন শীর্ষ তালেবান নেতাদের পরিচয়

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা সরে যাওয়ার কয়েকদিনের মধ্যে পুরো দেশ দখল করে নিয়েছে তালেবান। ১৯৯৪ সালে গঠিত তালেবানের বর্তমান শীর্ষ নেতাদের কয়েকজনের পরিচয় দেওয়া হলো।

হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা

তালেবানের সুপ্রিম নেতা আখুন্দজাদা এই গোষ্ঠীর রাজনৈতিক, ধর্মীয় ও সামরিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার সর্বোচ্চ ব্যক্তি৷ ২০১৬ সালে তার পূর্বসূরী আখতার মনসুর মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হওয়ার পর দায়িত্ব পান আখুন্দজাদা। পাকিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কুচলাক শহরের এক মসজিদে তিনি প্রায় ১৫ বছর শিক্ষকতা ও ধর্মপ্রচারের কাজ করেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স। তার বয়স প্রায় ৬০ বলে মনে করা হয়।
মোল্লা মোহাম্মদ ইয়াকুব

তালেবানের প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা ওমরের ছেলে তিনি। তালেবানের সামরিক অভিযানের দায়িত্বে আছেন ইয়াকুব। ২০১৬ সালে আখতার মনসুর নিহত হওয়ার পর ইয়াকুবকে তালেবানের দায়িত্ব নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু যুদ্ধক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা কম এবং বয়স কম হওয়ায় ইয়াকুব নেতা হিসেবে আখুন্দজাদার নাম প্রস্তাব করেন। ইয়াকুবের বয়স ৩০-এর ঘরে বলে ধারণা করা হয়।

সিরাজুদ্দীন হাক্কানি

হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রধান। পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্তে তালেবানের আর্থিক ও সামরিক সম্পদ দেখাশোনা করে এই গোষ্ঠী। আফগানিস্তানে আত্মঘাতী বোমা হামলার চল এই গোষ্ঠী শুরু করে বলে মনে করা হয়। সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইকে হত্যার চেষ্টা, ভারতীয় দূতাবাসে আত্মঘাতী হামলার জন্য হাক্কানি নেটওয়ার্ককে দায়ী করা হয়। হাক্কানির বয়স ৪০ থেকে ৫০ এর মধ্যে বলে মনে করা হয়।

মোল্লা আব্দুল গনি বারাদার

তালেবানের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা বারাদার এই গোষ্ঠীর রাজনীতি বিভাগের প্রধান। কাতারের দোহায় আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যে যে আলোচনা চলছিল, সেখানে উপস্থিত ছিলেন তিনি। তালেবান প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা ওমরের সবচেয়ে বিশ্বস্ত কর্মী ছিলেন বারাদার। ২০১০ সালে পাকিস্তানের করাচিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। ২০১৮ সালে তিনি ছাড়া পান।

শের মোহাম্মদ আব্বাস স্তানেকজাই

তালেবান যখন ক্ষমতায় ছিল, তখন তিনি উপমন্ত্রী ছিলেন। এরপর প্রায় এক দশক তিনি কাতারের দোহায় বাস করেন। ২০১৫ সালে তাকে দোহার রাজনৈতিক কার্যালয়ের প্রধান করা হয়। সাম্প্রতিক সময়ে আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যকার আলোচনায় তিনি উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া বিভিন্ন দেশে কূটনৈতিক সফরে তালেবানের প্রতিনিধিত্ব করেছেন স্তানেকজাই।

আব্দুল হাকিম হাক্কানি

তাকে তালেবানের বর্তমান সুপ্রিম নেতা আখুন্দজাদার সবচেয়ে বিশ্বস্ত মনে করা হয়। তিনি তালেবানের সাবেক ছায়া প্রধান বিচারপতি। বর্তমানে তিনি এই গোষ্ঠীর ধর্মীয় পণ্ডিতদের প্রভাবশালী সংগঠনের প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন। আফগান সরকারের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেয়া তালেবানের প্রতিনিধি দলের প্রধান ছিলেন হাক্কানি। তার এই ছবিটি ২০০৫ সালের।

Related posts

হতাহতদের দেহ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় মৃতের সংখ্যায় গরমিল: ফায়ার সার্ভিস

razzak

‘প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে কৃষিতে বিল্পব ঘটিয়েছে কৃষকরা’

razzak

সার্জিয় রামোসের কান্না বিজড়িত বিদায়

Irani Biswash

Leave a Comment

Translate »