আন্তর্জাতিক এই মাত্র পাওয়া

বড় ধাক্কা খেল বিজেপি

৩০ সেপ্টেম্বরের ভবানীপুর উপনির্বাচনের আগে বড় ধাক্কা খেল ভারতীয় জনতা পার্টি-বিজেপি।

দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। এই আসনে বিজেপি প্রার্থীর হয়ে প্রচারণা চালানোর কথা ছিল তার। কিন্তু এর আগেই হঠাৎ গেরুয়া শিবির ছেড়ে তৃণমূলে নাম লেখানোয় তুমুল আলোচনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

দেড় মাস আগে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় রদবদল হওয়ার সময় বাদ পড়েছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। এরপরই সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি। তবুও তাকে মাঝে-মধ্যেই টুইট করে বিজেপির নানা অনুষ্ঠানের প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে। এমনকি ভবানীপুরে বিজেপির প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালের হয়ে প্রচারণায় অংশ নেওয়ার সূচিতেও বাবুলের নাম প্রকাশ করে রাজ্য বিজেপি।

এই যখন পরিস্থিতি, হঠাৎ শনিবার দুপুরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন বাবুল সুপ্রিয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ কলকাতা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়সহ সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েনও। যোগ দেওয়ার কিছু সময়ের মধ্যে তৃণমূলের অফিসিয়াল পেজে ছবিও প্রকাশ করে দলটি। এ ঘটনার পরপরই দেশটির রাজনৈতিক অঙ্গনে চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা। বিজেপি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলছে, বাবুল সুপ্রিয়কে মন্ত্রিত্ব না দেওয়ার কারণেই তিনি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

এর আগে, বাবুল সুপ্রিয় আসানসোল লোকসভা আসন থেকে ২০১৪ এবং ২০১৯ সালে দুইবারের সাংসদ এবং কেন্দ্রীয় বন ও নগর উন্নয়ন দপ্তরের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন।

অন্যদিকে, পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে তৃণমূলকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ছেন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল। যদিও জয় নিশ্চিত মনে করছেন বামফ্রন্ট প্রার্থী। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ভবানীপুর আসনের উপনির্বাচন ছাড়াও পশ্চিমবঙ্গে আরো দুটি আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

উত্তাপ বেড়েই চলেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ভবানীপুরের উপনির্বাচনের প্রচারণায়। দু’দিন আগেই প্রেসের চোখ এড়িয়ে দক্ষিণ কলকাতার একটি মসজিদে উপস্থিত হয়েছিলেন ভবানীপুরের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ নিয়ে তৃণমূলের প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপি তীব্র কটাক্ষ করতে এতটুকুও ছাড়েনি। এই নিয়ে যখন বির্তক তখনই একই এলাকার শিখ সম্প্রদায়ের গুরুদুয়ারায় যান মমতা।

এদিকে বিজেপির প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গের অভিযোগ এনে নির্বাচন কমিশনে চিঠি দিয়েছে তৃণমূল। তবে বিজেপি বলছে, ৩০ তারিখের নির্বাচনের মাধ্যমেই তৃণমূলের এই ষড়যন্ত্রের জবাব দেবেন ভবানীপুরের সাধারণরা।

আর জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বামফ্রন্টও। বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল বলেন, ‘ভোট ঠিকমতো হলে ব্যালট বাক্সেই এর জবাব দেওয়া হবে।’

Related posts

ইউক্রেন যুদ্ধে রুশ মেজর জেনারেল নিহত

razzak

কুয়েতের স্বাধীনতা দিবসে ৩৫০ বন্দিকে সাধারণ ক্ষমা

razzak

টিকা ক্যাম্পেইনের দ্বিতীয় ডোজ ২৮-২৯ অক্টোবর: স্বাস্থ্যের ডিজি

razzak

Leave a Comment

Translate »