অক্টোবর ৫, ২০২২
MIMS 24
এই মাত্র জাতীয় ব্রেকিং শিক্ষা

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছুদের জন্য সতর্কতা, ইউজিসির গণবিজ্ঞপ্তি

দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ২৬টিতেই রয়েছে মালিকানা দ্বন্দ্ব। এসবের মধ্যে কিছু বিশ্ববিদ্যালয় চলছে আদালতের স্থগিতাদেশ নিয়ে। আবার অনেক বিশ্ববিদ্যালয় অনুমতি শিক্ষা প্রোগ্রামের বাইরেও প্রোগ্রাম পরিচালনা করছেন। রয়েছে ক্যাম্পাস বিড়ম্বনা।
এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা জারি করে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটি শুধুমাত্র সরকার এবং ইউজিসির অনুমোদিত ক্যাম্পাস ও প্রোগ্রামে ভর্তি হতে পরামর্শ দিয়েছে শিক্ষার্থীদের। এ বিষয়ে ইউজিসির ওয়েবসাইট থেকে তথ্য সংগ্রহ করে নেওয়ার পরামর্শও দিয়েছে তারা।

এছাড়া যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ছয় মাসের বেশি সময় ধরে রাষ্ট্রপতির নিয়োগ করা উপাচার্য, সহ-উপাচার্য এবং কোষাধ্যক্ষ নেই সেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি না হওয়ারও পরামর্শ দিয়েছে ইউজিসি।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ইউজিসি এ গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে।

ইউজিসি জানায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী বর্তমানে সারা দেশে ১০৮টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে নয়টিতে এখনও শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়নি। ৯৯ টিতে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে।

এদিকে সম্প্রতি দেশের বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেটধারীরা কানাডার জন্য মূল্যায়নের যোগ্যতা হারিয়েছেন।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডেনশিয়াল ইভালুয়েশন সার্ভিস (আইসিইএস)- এর ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত একটি তালিকা দেওয়া হয়েছে।

ওয়েবসাইটটিতে বলা হয়েছে, আইসিইএস সব দেশ থেকে প্রশংসাপত্র মূল্যায়ন করে থাকে। যদিও কিছু দেশে নির্দিষ্ট কিছু আলাদা চাহিদা থাকে। তালিকায় থাকা কিছু প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট কোর্সের জন্য মূল্যায়ন দিতে অক্ষম।

তবে এর অর্থ এই না যে, সব স্তরের শিক্ষার মূল্যায়ন প্রয়োজন। আবেদনকারীদের অবশ্যই সিদ্ধান্ত নিতে হবে কোনটি এবং কতটি প্রমাণপত্র মূল্যায়ন করতে হবে। কোনো দেশ নির্দিষ্ট প্রয়োজনীয়তা বা বিধিনিষেধ দেখতে দেশভিত্তিক তালিকা দেওয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, আপনার দেশ যদি এ তালিকায় না থাকে, তার মানে এই না যে, আপনার দেশের মূল্যায়ন আমরা করিনি। যদি আপনার দেশ এই তালিকায় না থাকে, তবে নিয়মিত প্রয়োজনীয়তাগুলো অনুসরণ করুন। যেগুলো সাধারণ আবেদনকারীর প্রয়োজনীয়তা বা ইসিএ আবেদনকারীর প্রয়োজনীয়তার (অভিবাসনের জন্য) অধীনে তালিকাভুক্ত। এ তালিকাতেই দেখা গেছে, বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উচ্চশিক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবেন না কানাডায়।

আইসিইএস দ্বারা বাংলাদেশের ৩৩টি বিশ্ববিদ্যালয়কে মূল্যায়ন করা যায়নি বলে জানানো হয়েছে। যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেটধারীরা কানাডার জন্য মূল্যায়নের যোগ্যতা হারিয়েছেন, তার তালিকা-

দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়, প্রাইম ইউনিভার্সিটি, সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি, নর্দান ইউনিভার্সিটি, বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়, আমেরিকা বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয়, কুইন্স বিশ্ববিদ্যালয়, আইবিএআইএস বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন অ্যান্ড টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্স, আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পিপলস ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি, সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি, গ্লোবাল ইউনিভার্সিটি, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, পুন্ড্রু ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয়, লিডিং ইউনিভার্সিটি, সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, সিটি ইউনিভার্সিটি, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, উত্তরা ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা, সেন্ট্রাল ওমেন্স ইউনিভার্সিটি এবং গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

Related posts

একুশে পদকের জন্য মনোনয়ন আহ্বান

Irani Biswash

যেভাবে প্রকাশ পেল পেগাসাস স্পাইওয়্যারের গুপ্তচরবৃত্তি

razzak

ডিএমপির মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪৩

razzak

Leave a Comment

Translate »