আন্তর্জাতিক এই মাত্র ব্রেকিং

কাতারে অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতার সুযোগ ৩১ মার্চ পর্যন্ত বাড়ল

অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা অর্জনের সুযোগ দিল কাতার। আগামী ৩১ মার্চ ২০২২ পর্যন্ত এই সুযোগ নিতে পারবে সংশ্লিষ্ট অবৈধ কর্মীরা।তবে অবৈধের আরোপিত জরিমানা পুরোপুরি মাফ কিংবা আংশিক ৫০% মওকুফ করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।দীর্ঘদিন পর এমন খবরে স্বস্তির জানিয়েছে কাতার প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

কাতারে প্রায় চার লাখের অধিক প্রবাসী বাংলাদেশির বসবাস। এছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের বসবাস কাতারে। অক্টোবর মাসে কাতার সরকারের অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা প্রদানের ঘোষণায় আনন্দিত ছিল প্রবাসীরা। কিন্তু অধিকাংশ প্রবাসী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বৈধতার আবেদনের জন্য কাগজপত্র প্রস্তুত করতে না পারায় পিছিয়ে পড়েন।

যেসব অভিবাসী কাতারের আইডির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার কারণে অবৈধ হয়ে আছে (রেসিডেন্সি আইন লঙ্ঘন), অথবা যারা অন্যান্য ভিসায় কাতারে এসে আর আইডি না করে অবৈধ হয়ে আছে তাদের ৩১ মার্চের মধ্যে কাতার সরকারের সার্ভিস সেন্টারগুলোতে অবস্থিত সিআইডি অফিসে যোগাযোগ করে আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে বৈধতার সুযোগ পাবে।

সেহলিয়া অবস্থিত সিআইডি অফিসে বুধবার বিকেলে এই বিষয় নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে অনুসন্ধান এবং অনুসরণ বিভাগ এবং ইউনিফাইড সার্ভিসেস বিভাগ। এসময় সার্চ অ্যান্ড ফলো আপ বিভাগের গ্রেস পিরিয়ড অফিসার ক্যাপ্টেন কামাল তাহির আল তাইরি এবং ইউনিফাইড সার্ভিসেস বিভাগের ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ আলী আল রশিদ সাংবাদিকদের বলেন অবৈধরা আইনী জটিলতা থেকে অব্যাহতি পেতে এক নিয়োগকর্তা থেকে অন্য নিয়োগকর্তাতে স্থানান্তর করুন অথবা নিজ উদ্যোগে কাতার ত্যাগ করলে আবার নতুন ভিসা নিয়ে কাতারে এসে বসবাস করতে পারবেন। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাবলিক রিলেশন ডিপার্টমেন্টে প্রধান ফয়সাল আল হুদাই।

যেকোনো কর্মদিবসে দুপুর ১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে সরকারি সার্ভিস সেন্টারে হাজির হতে হবে। সার্ভিস সেন্টারগুলোর মধ্যে রয়েছে উম সালাল সার্ভিস সেন্টার, উম সানিম সার্ভিস সেন্টার, মিসাইমির সার্ভিস সেন্টার, ওয়াকরা সার্ভিস সেন্টার, আল রাইয়ান সার্ভিস সেন্টারে আসার আহ্বান জানান।

কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়াই সিআইডি অফিসে গিয়ে অবৈধভাবে যারা বসবাস করছেন তারা এই সুযোগ কাজে লাগাতে পারবেন। দীর্ঘদিন পর এমন খবরে স্বস্তির কাতার প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

তবে এই মুহূর্তে কতজন বাংলাদেশি কাতারে অবৈধভাবে বসবাস করছেন এর কোন সঠিক তথ্য নেই। যারা এসব আইন অমান্য করবে তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সতর্কতা করলেন কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। শেষে দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমের পাশাপাশি
কাতার বাংলা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের প্রেস ব্রিফিং করেন ক্যাপ্টেন কামাল তাহির আল তাইরি এবং ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ আলী আল রশিদ।

Related posts

কানাডায় আদিবাসী-অধ্যুষিত এলাকায় দুটি ক্যাথলিক গির্জায় অগ্নিসংযোগ

Irani Biswash

৯ ও ১০ আগস্ট ব্যাংকে লেনদেন ১০-৩টা

razzak

সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার ১১ প্রকল্প অনুমোদন

razzak

Leave a Comment

Translate »