ফেব্রুয়ারী ২, ২০২৩
MIMS 24
আন্তর্জাতিক এই মাত্র এই মাত্র পাওয়া জীবনধারা টেকনোলজি ব্রেকিং ব্রেকিং নিউজ স্বাস্থ্য

মস্তিষ্কে চলছে জটিল অস্ত্রোপচার, রোগী বাজাচ্ছে স্যাক্সোফোন

ইতালির রাজধানী রোমের একটি হাসপাতালে চিকিৎসকরা অত্যন্ত অবাক করা অস্ত্রোপচার করেছেন। সেখানে একজন সংগীতশিল্পী তার মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার চলাকালীন পুরো ৯ ঘণ্টা স্যাক্সোফোন বাজিয়েছেন। জিজেড নামে পরিচিত ৩৫ বছর বয়সী এ রোগীর অস্ত্রোপচার হয়েছে রোমের পাইডিয়া আন্তর্জাতিক হাসপাতালে গত সোমবার (১০ অক্টোবর)।

প্রিয় বেহালা, গিটার কিংবা বাঁশি অথবা গান শুনিয়ে অস্ত্রোপচার নতুন নয়। সঙ্গীতের সঙ্গে স্নায়ু তন্ত্রের উদ্দীপনার যে সম্পর্ক রয়েছে, তা বহু গবেষণায় প্রমান করেছেন বিজ্ঞানীরা। চিকিৎসা বিজ্ঞান এবং কগ্‌নিটিভ সায়েন্সে এ নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে। যার সাম্প্রতিক উদাহরণ হলো ইতালির  রোমের এক হাসপাতালের এ  অস্ত্রোপচার। ব্রেন টিউমারের অস্ত্রোপচার চলাকালীন অপরেশন থিয়েটারে স্যাক্সোফোন বাজালেন রোগী।

রোগীর মস্তিষ্কের বিভিন্ন জটিল অংশে চিকিৎসকরা যখন ছুরি, কাঁচি চালাতে ব্যস্ত, তখন তিনি নিশ্চিন্তে বাজিয়ে গেলেন সত্তরের দশকের আমেরিকান ছবি ‘লাভ স্টোরি’র আবহ সঙ্গীত। তাও আবার টানা ন’ঘণ্টা ধরে। চিকিৎসকদের অবশ্য তাতে কোনও অসুবিধা হয়নি। বরং তাঁরা জানিয়েছেন, রোগীর মস্তিষ্ক সচল থাকায় তার বিভিন্ন অংশের ভূমিকা বুঝে অস্ত্রোপচার করতে সুবিধেই হয়েছে তাদের।

মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার চলাকালীন রোগীকে অজ্ঞান না করার এই প্রক্রিয়াকে বলা হয় অ্যাওয়েক সার্জারি। যেখানে রোগীর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার চলাকালীন তা সচল রাখতে হয়। রোমের পাইডিয়া আন্তর্জাতিক হাসপাতালে ব্রেন টিউমারের ওই রোগীর চিকিৎসার জন্যও অ্যাওয়েক সার্জারির প্রয়োগ করা হয়। তাঁকে আগে থেকেই জানিয়ে অস্ত্রোপচার শুরু করেছিলেন চিকিৎসকরা।

হাসপাতালটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জটিল অস্ত্রোপচারের সময় চিকিৎসকেরা ওই রোগীকে জাগিয়ে রেখেছিলেন। কারণ, তাঁরা চাননি তাঁর স্বাভাবিক স্নায়ুবিক কার্যক্রম ব্যাহত হোক। বিবৃতিতে আরো জানানো হয়েছে, অস্ত্রোপচার চলাকালীন তাঁর স্নায়ুর কার্যকলাপ যাতে ঠিক থাকে, তা নিশ্চিত করতেই চিকিৎসকরা অজ্ঞান করার কোনও ওষুধ দেননি।

জিজেডের অস্ত্রোপচারে নেতৃত্ব দেন নিউরোসার্জন ডা. ক্রিশ্চিয়ান ব্রোগনা।

ডা. ক্রিশ্চিয়ান ব্রোগনা বলেন, ‘প্রতিটি মস্তিষ্ক অনন্য, প্রতিটি ব্যক্তির মতো। ’ তিনি আরো বলেন, ‘রোগীকে জাগ্রত রেখে অস্ত্রোপচার করলে নিউরোনাল নেটওয়ার্কগুলো অত্যন্ত নির্ভুলতার সঙ্গে নকশা করা সম্ভব। ’ নিউরোনাল নেটওয়ার্কগুলোর মধ্যে রয়েছে মস্তিষ্কের বিভিন্ন ফাংশন যেমন খেলা, কথা বলা, চলাফেরা, মনে রাখা এবং গণনা করা।

জিজেডের অস্ত্রোপচারে ডা. ব্রোগনারের সঙ্গে ১০ সদস্যের আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল ছিলেন। এ ক্ষেত্রে তাঁরা সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করেছেন।

এদিকে এক বিবৃতিতে রোগী জিজেড বলেছেন, অস্ত্রোপচারের সময় তিনি ভয় পাওয়ার পরিবর্তে প্রশান্তি অনুভব করেছেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের প্রকাশ করা ছবিতে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, এক দিকে চিকিৎসকেরা তাঁর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করছেন, অন্যদিকে জিজেড স্যাক্সোফোন বাজিয়ে চলেছেন।

ডা. ব্রোগনা বলেন, তাঁর আশা, জিজেড দ্রুতই স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যেতে পারবেন। এমন একটি ব্যতিক্রমী অথচ সফল অস্ত্রোপচারের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পেরে নিজের গর্বের কথাও জানান তিনি।

Related posts

পার্লামেন্টে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাচ্ছেন ম্যাক্রোঁ

razzak

শাল্লার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ আলবার্টা আওয়ামি লীগের

Mims 24 : Powered by information

২-৫ কোটি টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগে আগ্রহ ইভ্যালি

Irani Biswash

Leave a Comment

Translate »