ফেব্রুয়ারী ২, ২০২৩
MIMS 24
অপরাধ এই মাত্র এই মাত্র পাওয়া জাতীয় ব্রেকিং ব্রেকিং নিউজ

বুয়েটছাত্র ফারদিনকে হত্যা করা হয়েছে: ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক

নিখোঁজের তিন দিন পর নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদী থেকে উদ্ধার হওয়া বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র ফারদিন নূর ওরফে পরশকে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর)  ময়নাতদন্ত শেষে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা শেখ ফরহাদ এই তথ্য জানান।

চিকিৎসক শেখ ফরহাদ বলেন, ‘ফারদিনের পুরো মাথার বিভিন্ন অংশে আঘাত পাওয়া গেছে। বুকের ভেতরে আঘাতের চিহ্ন আছে। প্রাথমিকভাবে আমরা বুঝতে পেরেছি, এটি অবশ্যই হত্যাকাণ্ড। ময়নাতদন্ত শেষে দ্রুত প্রতিবেদন দেওয়া হবে।’

ফারদিনের বাবা সাংবাদিকদের বলেন, ‘ছেলেকে তো আর ফিরে পাব না। একটাই দাবি, হত্যাকারীদের খুঁজে বের করে তাদের যেন বিচারের মুখোমুখি করা হয়। একটাই প্রত্যাশা, ফারদিনের মায়ের মতো আর কোনো মায়ের বুক যেন খালি না হয়।’

এদিকে ময়নাতদন্তশেষে ফারদিনের মরদেহ নেয়া হয় বুয়েটের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় তার নামাজে জানাজা। পরে সেখান থেকে মরদেহ নেয়া হয় তার ডেমরার বাড়িতে। সেখানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

নিখোঁজের তিন দিন পর সোমবার (৭ নভেম্বর) নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদী থেকে উদ্ধার করা হয় ফারদিনের লাশ। নিহত ফারদিন নূর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

ফারদিন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের নয়ামাটি এলাকার কাজী নুর উদ্দিন রানার ছেলে। রাজধানীর ডেমরার কোনাপাড়া শান্তিবাগ এলাকায় তাদের বাসা।

গত শুক্রবার (৪ নভেম্বর) নিখোঁজ হন বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন নূর। পরদিন শনিবার সকালে ল্যাবে তাদের প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষা ছিল। তাই শুক্রবার ফারদিন তার এক বন্ধুকে ফোন করে জানিয়েছিলেন রাতে হলে এসে থাকবেন। পরদিন সকালে পরীক্ষায় অংশ নেবেন। কিন্তু এদিন ফারদিন বাসা থেকে বের হলেও হলে আসেননি এবং পরীক্ষায় অংশ নেননি।

ফারদিনের নিখোঁজের পরদিন শনিবার রাজধানীর রামপুরা থানায় এ বিষয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তাঁর বাবা কাজী নূর উদ্দিন। ফারদিনের বাবা কাজী নূর উদ্দিন বিজনেস পত্রিকা ‘দ্য রিভারাইন’-এর সম্পাদক ও প্রকাশক। ফারদিনের মা ফারহানা ইয়াসমিন গৃহিণী।

মেধাবী ফারদিন এসএসসি ও এইচএসসিতে সব বিষয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সুযোগ পেয়েছিলেন। ফারদিন পড়ালেখার পাশাপাশি এক্সট্রা কারিকুলার অ্যাকটিভিটিজে জড়িত ছিলেন। তিনি বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে আসা-যাওয়া ও সামাজিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত ছিলেন।

Related posts

বিশ্বকাপ শুরুর আগে দুঃসংবাদ, ইনজুরিতে রিয়াদ

razzak

জনি ডেপকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার অর্থ নেই, আর্থিক সংকটে অ্যাম্বার!

razzak

‘সাংবাদিকদের স্বাধীনতার ওপর হুমকি দিনে দিনে বাড়ছে’

razzak

Leave a Comment

Translate »