ফেব্রুয়ারী ২, ২০২৩
MIMS 24
আইন ও বিচার আন্তর্জাতিক এই মাত্র এই মাত্র পাওয়া জীবনধারা ব্রেকিং ব্রেকিং নিউজ যুক্তরাষ্ট্র

অভিবাসী রুখতে যুক্তরাষ্ট্রে বিতর্কিত ‘অভিবাসন নীতি’ বহালে সুপ্রিম কোর্টের রুল

অভিবাসন ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আমলে করা নীতি বহাল থাকছে দেশটিতে। ২০২০ সালে করোনা মহামারিকে সামনে রেখে ‘টাইটেল ৪২’ আইনটি কার্যকর করেছিল ট্রাম্প প্রশাসন। এই আইনের সাহায্যে যে কোনো শরণার্থী, উদ্বাস্তু কিংবা অভিবাসন প্রত্যাশীকে বিনা নোটিশে দেশ থেকে বের করে দেওয়া যায়। এমনকি সীমান্তে আটকেও দেওয়া যায় অভিবাসী-শরণার্থীদের।

করোনা পরবর্তী সময়ে ‘টাইটেল ৪২’ আইনটি জারি থাকবে কিনা, তা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা হয়। বাইডেন প্রশাসন আইনটি তুলে দিতে চাইলেও যুক্তরাষ্ট্রের ১৯টি সীমান্তবর্তী অঙ্গরাজ্য এটি কার্যকর রাখার পক্ষে দাবি জানায়। গত মঙ্গলবার (২৭ ডিসেম্বর) আদালত শেষ পর্যন্ত ৫-৪ ভোটে আইনটি আপাতত কার্যকর রাখার সিদ্ধান্ত দিয়েছে। যদিও একইসঙ্গে আদালত জানিয়েছে, সীমান্তবর্তী যে সমস্যাগুলোর কথা রাজ্যগুলো বলছে, তার সঙ্গে করোনার কোনো সম্পর্ক নেই।

যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৪৪ সালে প্রথম এ ‘টাইটেল ৪২’ আইন পাস হয়। গণস্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে আইনটি তৈরি হয়েছিল। তবে আইনটি প্রথম কার্যকর হয় ২০২০ সালে ট্রাম্প প্রশাসনের হাত ধরে। এ আইনের সাহায্যে সহজে ভিসাবিহীন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক নন এমন মানুষকে বিনা নোটিশে দেশ থেকে বিতাড়িত করা যায়। এখন পর্যন্ত এ আইন দুই দশমিক পাঁচ মিলিয়ন বার প্রয়োগ হয়েছে বলে আদালতে জানিয়েছে প্রশাসন। এ আইনের সাহায্যে অনেক শরণার্থীকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মহামারি করোনার মাঝেও বাড়ে অভিবাসীর সংখ্যা। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শিথিল নীতির কারণে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত অতিক্রম করে অবৈধ অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ঘটনা ব্যাপক হারে বেড়েছে। শুধু গত বছরই যুক্তরাষ্ট্র প্রবেশ করেছে ১০ লাখ ৬০ হাজারের বেশি অবৈধ অভিবাসী।

যুক্তরাষ্ট্রে বিদেশি বংশোদ্ভূত জনসংখ্যার নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। গত আদমশুমারির তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে বৈধ-অবৈধ অভিবাসীর সংখ্যা এখন ৪৬ লাখ ৬০ হাজারের বেশি। এ সংখ্যা গত বছরের তুলনায় ১০ লাখ ৬০ হাজারের বেশি। বিদেশি বংশোদ্ভূত জনসংখ্যা এখন আদমশুমারি দ্বারা গণনা করা দেশের সব লোকের ১৪ দশমিক ২ শতাংশ, যা ১১২ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আমলে কার্যকর করা অভিবাসনবিষয়ক বিতর্কিত ‘টাইটেল ৪২’ আইন বহাল রাখতে সর্বোচ্চ আদালত থেকে নির্দেশ আসায় যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ওপর রাজনৈতিক চাপ আরও বাড়ল। কারণ, অভিবাসন নিয়ে এই নীতি বাতিল হচ্ছে বলে ধারণা ছিল জো বাইডেন প্রশাসনের।

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টে বর্তমানে যেসব বিচারপতি আছেন, তাঁদের বেশির ভাগ রিপাবলিকান মনোনীত। অভিবাসীদের সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে সতর্ক করে আদালতে ১৯টি অঙ্গরাজ্যের করা পিটিশন আমলে নিয়ে এই রুল দিলেন আদালত। সুপ্রিম কোর্টের মোট ৯ জন বিচারপতির মধ্যে পাঁচজন রুলের পক্ষে ও চারজন বিপক্ষে ছিলেন।

মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের রুলে বলা হয়েছে, ‘অঙ্গরাজ্যগুলো জানিয়েছে, সীমান্তে হাজারো অভিবাসনপ্রত্যাশী নিয়ে তারা সংকটে পড়েছে। বিষয়টি সমাধানে নীতিনির্ধারকেরা একটি যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছেন। এখন এ সংকট সমাধানে একটি উপায় অবশিষ্ট আছে। সেটি হলো সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে ফেডারেল সরকারকে সরাসরি নির্দেশ দিয়ে এ নীতি যত দিন পারা যায় রাখতে বলা।’

সুপ্রিম কোর্টের রুলের পর হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র ক্যারিন জ্যাঁ পিয়েরে বলেন, ‘ফেডারেল সরকার আদালতের নির্দেশ মেনে চলবে এবং পরবর্তী শুনানির জন্য প্রস্তুতি নেবে। একই সঙ্গে টাইটেল ৪২ যখন বাতিল হবে, তখন নিরাপদ, সুশৃঙ্খল ও মানবিক উপায়ে সীমান্ত পরিচালনার প্রস্তুতি আরও ত্বরান্বিত করা হবে।’

Related posts

গুগলকে ১ লাখ ৩৫ হাজার ডলার জরিমানা করল রাশিয়া

razzak

এবার স্বর্ণের দাম কমল

razzak

দেশে রেকর্ড ১৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ‍্যুৎ উৎপাদন

razzak

Leave a Comment

Translate »