আন্তর্জাতিক এই মাত্র এই মাত্র পাওয়া ব্রেকিং ব্রেকিং নিউজ রাজনীতি

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হলেন ‘চীনপন্থী’ মোহামেদ মুইজ্জু

ভারত মহাসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপের নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন বিরোধী দল প্রোগ্রেসিভ পার্টি অব মালদ্বীপসের (পিপিএম) প্রার্থী মোহামেদ মুইজ্জু। শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দ্বিতীয় দফা প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহকে পরাজিত করেন। আগামী ১৭ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন মোহামেদ মুইজ্জু।

চলতি মাসের গোড়ার দিকে মালদ্বীপে প্রথম ধাপের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন হয়। কিন্তু, কোনও প্রার্থীই ৫০ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় ফের শনিবার দ্বিতীয় ধাপের ভোট অনুষ্ঠিত হয়। সেই ভোটে ৫৪.৬ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হন মোহামেদ মুইজ্জু। অন্যদিকে ৪৬.২৭ শতাংশ ভোট পেয়েছেন ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ। ইতিমধ্যে পরাজয় স্বীকার করে নতুন প্রেসিডেন্টকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

৪৫ বছর বয়সী নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহামেদ মুইজ্জু চীনঘেঁষা হিসেবে ব্যাপকভাবে পরিচিত। এর আগে তিনি রাজধানী মালের মেয়ের ছিলেন। তার ক্যাম্পেইনের অন্যতম স্লোগান ছিল ‘ইন্ডিয়া আউট’।

মালদ্বীপের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ ভারতপন্থী হিসেবে পরিচিত। মালদ্বীপ ডেমোক্রেটিক পার্টির হয়ে ২০১৮ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ভারতের সাথে সুসম্পর্ক জোরদার করেছিলেন মোহমেদ সলিহ। একইসাথে দিল্লির সাথে মালে বেশ ঘনিষ্ঠ সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক রক্ষা করে চলেন। এটিকে তিনি ‘ইন্ডিয়া ফাস্ট’ পলিসি হিসেবে অভিহিত করেন।

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহামেদ মুইজ্জু যুক্তরাজ্যে পুরকৌশল বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন। মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনের শাসনামলে অবকাঠামো নির্মাণমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মোহামেদ মুইজ্জু। ২০১৮ সালে আবদুল্লাহ ইয়ামিনকে হটিয়ে ক্ষমতায় আসেন ইব্রাহিম সলিহ। এরপর দুর্নীতির অভিযোগে ইয়ামিনকে কারাগারে পাঠানো হয়। তাঁর অনুপস্থিতিতে দলের হাল ধরেন মুইজ্জু।

২০১৮ সালে আবদুল্লাহ ইয়ামিনকে হারিয়ে ক্ষমতায় আসেন ইব্রাহিম সলিহ। ক্ষমতায় থাকাকালে বিরোধী দলের অনেক নেতাকে বিতর্কিতভাবে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন ইয়ামিন। ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর সেই কারাগারেই রাখা হয়েছে তাঁকে। মোহামেদ মুইজ্জু এর আগে জানিয়েছেন, তিনি নির্বাচিত হলে ইয়ামিনকে মুক্ত করবেন।

ভারত মহাসাগরের মাঝখানে একটি কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে মালদ্বীপ। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের মধ্য দিয়ে যে জাহাজ চলাচলের রুট বা শিপিং লাইনগুলোর মাঝখানে দেশটির অবস্থান। যেহেতু মোহামেদ মুইজ্জু চীনঘেঁষা হিসেবে পরিচিত আর তাই তাঁর প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার অর্থ হলো— দেশটির রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অঙ্গনে ভারতের যে প্রভাব রয়েছে সেটি কমে যাবে। অপরদিকে বাড়বে চীনের প্রভাব।

Related posts

ভ্যাকসিন বৈষম্যের সমালোচনায় হু

Irani Biswash

শিশু শান্তি পুরস্কারে মনোনীত সিরাজগঞ্জের মেয়ে প্রিয়াংকা

razzak

করোনায় মৃত্যু ১৩৪

Irani Biswash

Leave a Comment

Translate »