আন্তর্জাতিক এই মাত্র এই মাত্র পাওয়া জাতীয় বাংলাদেশ ব্রেকিং ব্রেকিং নিউজ স্বাস্থ্য

সায়মা ওয়াজেদ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আঞ্চলিক পরিচালক নির্বাচিত

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(ডব্লিওএইচও)’র দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক পদে নির্বাচিত হয়েছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল।

ডব্লিওএইচও বুধবার (১ নভেম্বর) এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, সায়মা ওয়াজেদ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরবর্তী আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

ডব্লিউএইচও’র দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের আঞ্চলিক কমিটির ৭৬তম অধিবেশনে এক বৈঠকে সদস্য রাষ্ট্রগুলো সায়মা ওয়াজেদকে মনোনীত করার পক্ষে ভোট দিয়েছে।

সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল পেয়েছেন ৮ ভোট ৷ আর নেপালের ড. সম্ভু প্রসাদ আচার্য্য পেয়েছেন ২ ভোট৷

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ২২-২৭ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখে অনুষ্ঠিতব্য ১৫৪তম অধিবেশনে ডব্লিউএইচও’র নির্বাহী বোর্ডে মনোনয়ন জমা দেয়া হবে।

নবনিযুক্ত আঞ্চলিক পরিচালক ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ তারিখে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন বলে ডব্লিউএইচও’র বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অঞ্চল বাংলাদেশ, ভুটান, কোরিয়া, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, মিয়ানমার, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড এবং পূর্ব তিমুর নিয়ে গঠিত।

মিয়ানমার ভোট দেওয়ার যোগ্য ছিল না।

ডব্লিউএইচও’র আঞ্চলিক প্রধান হিসেবে সায়মা ওয়াজেদই হবেন প্রথম বাংলাদেশি যিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে নির্বাচিত হলেন।

সায়মা ওয়াজেদ তাঁর এক্স (সাবেক টুইটার) অ্যাকাউন্টে দেওয়া পোস্টে নির্বাচিত হওয়ার খবর জানান। তিনি বলেন, ‘আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে নির্বাচিত করায় আমি ডব্লিউএইচওর দক্ষিণ–পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের সদস্যরাষ্ট্রগুলোকে ধন্যবাদ জানাই। আমাদের অঞ্চলের জনস্বাস্থ্যে অবদানের জন্য আমি বিদায়ী পরিচালক ড. পুনম ক্ষেত্রপাল সিংয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।’

এর আগে বাংলাদেশ সরকার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক পদে সায়মা ওয়াজেদকে মনোনীত করেছিল। ডব্লিউএইচও দক্ষিণ–পূর্ব অঞ্চলবিষয়ক কার্যালয় ওই সংস্থার ছয়টি আঞ্চলিক অফিসের মধ্যে একটি। সায়মা ওয়াজেদ ১৯৯৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মনোবিজ্ঞানে স্নাতক এবং ২০০২ সালে ক্লিনিক্যাল মনস্তত্ত্বে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০০৪ সালে স্কুল সাইকোলজির ওপর বিশেষজ্ঞ ডিগ্রি অর্জন করেন। ব্যারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের সময় তিনি বাংলাদেশের নারীদের উন্নয়নের ওপর গবেষণা করেন।

সায়মা ওয়াজেদ ২০০৮ সাল থেকে শিশুদের অটিজম এবং স্নায়ুবিক জটিলতা সংক্রান্ত বিষয়ের ওপর কাজ করছেন। তিনি ২০১১ সালে ঢাকায় অটিজম বিষয়ক প্রথম দক্ষিণ এশীয় সম্মেলন আয়োজন করেন। ২০১৩ সাল থেকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় মানসিক স্বাস্থ্যের বিশেষজ্ঞ পরামর্শক হিসেবে কাজ করছেন। এর স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৪ সালে বিশ্ব সংস্থার দেয়া ডব্লিউএইচও অ্যাক্সিলেন্স পুরস্কারে ভূষিত হন।

Related posts

বাংলাদেশে খেলতে আসছে না ভ্যালেন্সিয়া

razzak

পঞ্চম শিরোপা ঘরে তুলল ভারতীয় যুবারা

razzak

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বন্ধ সোমবার থেকে

Irani Biswash

Leave a Comment

Translate »